বটতলা রঙ্গমেলায় কৃষ্ণকুমারী পেলেন সম্মাননা

বটতলা রঙ্গমেলায় কৃষ্ণকুমারী পেলেন সম্মাননা

বিনোদন ডেস্ক: দেশআমারবিডি ডট কম
আপডেট: ০৪
কৃষ্ণকুমারী সিনহার হাতে সম্মাননা তুলে দেন নাট্যশিক্ষক, গবেষক ও নির্দেশক সৈয়দ জামিল আহমেদগতকাল সোমবার ছিল নাটকের দল বটতলা আয়োজিত রঙ্গমেলার পঞ্চম দিন। এদিন মণিপুরি সংস্কৃতির বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব কৃষ্ণকুমারী সিনহাকে সম্মাননা দিল বটতলা।
গতকাল সোমবার রাজধানীর নাটক সরণির (বেইলি রোড) মহিলা সমিতির নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তনে বটতলা আয়োজিত রঙ্গমেলায় এ অনুষ্ঠান হয়। কৃষ্ণকুমারী সিনহার হাতে সম্মাননা তুলে দেন নাট্যব্যক্তিত্ব সৈয়দ জামিল আহমেদ। এ সময় কৃষ্ণকুমারী সিনহা বলেন, ‘সবার ভালোবাসা নিয়েই যেন আজীবন পথ চলতে পারি।’ এরপর মণিপুরি ভাষায় গান গেয়ে শোনান কৃষ্ণকুমারী।
নাট্যশিক্ষক, গবেষক ও নির্দেশক সৈয়দ জামিল আহমেদ বলেন, ‘বৈচিত্র্যপূর্ণ সংস্কৃতির দেশ বাংলাদেশ। নানা জাতিগোষ্ঠীর সংস্কৃতি নিয়ে আমরা সমৃদ্ধ। কৃষ্ণকুমারী সিনহা মণিপুরি সংস্কৃতিচর্চায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন। ১৯৯৫ সালে মণিপুরি রাসলীলায় তাঁর পরিবেশনা আমি দেখেছি। এই গুণী শিল্পীকে সম্মান জানিয়েছে বটতলা। এর জন্য বটতলাকে অভিনন্দন জানাই।’
১৯৪৫ সালে মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার ঝাঁপের গাঁওয়ে জন্মগ্রহণ করেন কৃষ্ণকুমারী সিনহা। ১৮ বছর বয়সে প্রথম গানের শিল্পী হিসেবে মণিপুরীদের ঐতিহ্যবাহী পরিবেশনায় অংশগ্রহণ করেন। নিজ অঞ্চল ও ভারতের আসাম-ত্রিপুরা মিলিয়ে বর্তমান সময় পর্যন্ত তিনি ৩০০র বেশি মণিপুরী রাসলীলায় সূত্রধারী (প্রধান গায়িকা) হিসেবে গান করেছেন। এ ছাড়া শতাধিক রাসলীলায় নৃত্যশিল্পী হিসেবে অংশগ্রহণ করেছেন। প্রায় ৩০ বছর যাবৎ মণিপুরী নৃত্যগুরু হিসেবে কাজ করছেন কৃষ্ণকুমারী সিনহা। এখন পর্যন্ত প্রায় ৩০টির মতো রাসলীলা পরিচালনা করেছেন। রাসলীলা ছাড়াও কৃষ্ণকুমারী মণিপুরীদের অন্যান্য পরিবেশনা নিয়ে নিরীক্ষাধর্মী কাজ করেছেন।
‘নটধা’র ‘অথৈ’ নাটকের একটি দৃশ্য‘অথৈ’ নাটকের শিল্পীদের হাতে উৎসব স্মারক তুলে দেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর১ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া বটতলা রঙ্গমেলার পঞ্চম দিনে মহিলা সমিতির নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তনে পরিবেশিত হলো ভারতের কলকাতার হাওড়ার অঞ্চলের নাটকের দল নটধার নাটক ‘অথৈ’। নাটকটির রচনা ও নির্দেশনা অর্ণ মুখোপাধ্যায়। নাটক শেষে তাদের হাতে উৎসব স্মারক তুলে দেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। যথারীতি নাটকের পরে নির্দেশক উপস্থিত হন দর্শকের সামনে রঙ্গ আড্ডাতে। বিকেলে বহিরাঙ্গনে নাসিরুদ্দিন নাদিম মঞ্চে পরিবেশিত হয় ‘মাদল’-এর গান। মাদলের হাতে উৎসব স্মারক তুলে দেন অভিনেত্রী ও নির্দেশক সামিউন জাহান।
আজ নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তনের মঞ্চস্থ হবে প্রাঙ্গনেমোরের নাটক ‘কনডেমড সেল’। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বটতলা সম্মাননা দেওয়া হবে ময়মনসিংহ বিভাগের নাট্যজন জ্যোৎস্না চক্রবর্তীকে।
বিকেল সাড়ে পাঁচটায় বহিরাঙ্গনে গায়েনের পরিবেশনায় হবে গান। তাঁদের হাতে পদক তুলে দেবেন অভিনেতা ও নির্দেশক আসাদুল ইসলাম।

No comments: