বড়বড়িয়া বিদ্যালয়ের মেয়েদের সাফল্য ওদের ঢাকা যাওয়ার টাকা নেই

বড়বড়িয়া বিদ্যালয়ের মেয়েদের সাফল্য

ওদের ঢাকা যাওয়ার টাকা নেই

ক্রীড়া ডেস্ক : দেশআমারবিডি ডট কম|  
আপডেট: বৃহস্পতিবার | 
বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টে রাজশাহী বিভাগীয় চ্যাম্পিয়ন হয়ে বাড়ি ফিরে মা–বাবার সঙ্গে দলীয় অধিনায়ক কামরুন্নাহার l ছবি: শহীদুল ইসলামসেমিফাইনালে দুই মিনিটের মাথায় গোল করল সে। ফাইনালেও শেষ গোলটা করল। পায়ে ক্ষিপ্র গতি, অব্যর্থ নিশানা। সে দলের অধিনায়ক। নাম কামরুন্নাহার। তার নেতৃত্বে বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টে তাদের দল রাজশাহী বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। গতকাল তাদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। সবই ঠিক আছে, কিন্তু ঠিক নেই ওদের স্বাস্থ্য। চেহারায় অপুষ্টির ছাপ। অধিনায়কের মতো দলের সবাই উঠে এসেছে হতদরিদ্র পরিবার থেকে। জাতীয় পর্যায়ে খেলার জন্য তাদের আর ঢাকায় যাওয়ার পয়সা নেই। দলের কোচ ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুদ রানা ব্যক্তিগত উদ্যোগে তাদের এত দূর নিয়ে এসেছিলেন। এখন তাঁর চোখেমুখেও হতাশা। এটি হচ্ছে রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার বড়বড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দল। গত শুক্রবার রাজশাহী মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামে বিভাগীয় পর্যায়ের চূড়ান্ত পর্বের খেলায় তারা সিরাজগঞ্জ জেলাকে ৪-১ গোলে হারিয়ে বিভাগীয় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।
বড়বড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি চারঘাট উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দূরে একটি নিভৃত গ্রামে। এই গ্রামেই সব খেলোয়াড়ের বাড়ি। কারও কারও বসতবাড়ি ছাড়া আর কিছুই নেই। কারও বাবা মুদিদোকানি, কারও বাবা সবজি বিক্রি করেন, কারও বাবা দিনমজুরি করেন। এই সব পরিবার থেকেই উঠে এসেছে ২২ জনের একটি ফুটবল দল। তাদের মধ্যে ১৭ জন বিভাগীয় প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার জন্য গত ৩০ অক্টোবর থেকে রাজশাহী মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামেই রয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুরে খোলা ট্রাকে করে তাদের রাজশাহী থেকে চারঘাটে নিয়ে যাওয়া হয়। চারঘাট উপজেলা পরিষদ চত্বরে তাদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়।
দলের অধিনায়ক কামরুন্নাহারসহ পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে সুমনা খাতুন, বর্ষা খাতুন, বৃষ্টি খাতুন, সাদিয়া ইসলাম, শাপলা খাতুন, পলি খাতুন, তানিয়া খাতুন, অনক ও সাজমনি। চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে সাদিয়া তুত্তাইবা, প্রিয়া খাতুন, তাসলিমা খাতুন, মিনু খাতুন, স্বর্ণালী আক্তার, মায়া খাতুন। এ ছাড়া রয়েছে তৃতীয় শ্রেণির শারমিন খাতুন। তাদের মধ্যে বিভাগীয় পর্যায়ে ব্যক্তিগতভাবে শ্রেষ্ঠ খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছে আক্তার। স্বর্ণালী আক্তার ও মিনু খাতুন উপজেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ।

No comments: