জাতির জনকের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা

স্টাফ রিপোর্টার
সারাদেশে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪০তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হচ্ছে। গভীর শোক আর বিনম্র শ্রদ্ধায় জাতি অবনত মস্তকে স্মরণ করছে ১৫ আগস্টের কালরাতে শাহাদাত বরণকারী বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে।
ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু ভবনে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি। টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন প্রধানমন্ত্রী। স্বাধীনতার মহান স্থপতি বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে দুই স্থানেই মানুষের ঢল নামে। নেতাকর্মীরা ছাড়াও শিশু, তরুণ, বৃদ্ধ সব বয়সের মানুষ এসেছিল ফুল হাতে।
শনিবার সকাল সাড়ে ৬ টার দিকে রাজধানীর ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রথমে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। এরপর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তারা বেশ কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। এসময় বিউগলের করুণ সুর বাজানো হয়।
পরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরী। এরপর আওয়ামী লীগ সভানেত্রী হিসেবে দলের অন্যান্য সদস্যদের নিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বঙ্গবন্ধু ও ১৫ আগস্টে শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া-মোনাজাত করা হয়।
এ সময় মন্ত্রীসভার সদস্যসহ ১৪ দলের অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। পরে ১৪ দল, আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন, বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ধানমণ্ডিতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।
বঙ্গবন্ধু ভবনে শ্রদ্ধা নিবেদেনের পর সকাল সাড়ে ৭টায় প্রধানমন্ত্রী বনানী কবরস্থানে গিয়ে তার পরিবারের অন্য সদস্য ও স্বজনসহ ১৫ আগস্টের শহীদদের কবরে পুষ্প অর্পণ করেন। কবরে ফুলের পাপড়ি ছিটিয়ে দেন তিনি। এর পর পবিত্র ফাতেহা পাঠ, দোয়া ও মোনাজাতে অংশ নেন। এখানেও আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন দল ও সংগঠন শ্রদ্ধা নিবেদন করে। শ্রদ্ধা নিবেদনের পর কবরস্থান মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
বনানী কবরস্থানে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে প্রধানমন্ত্রী হেলিকপ্টারে টুঙ্গিপাড়া যান। সেখানে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ফাতেহা পাঠ ও মোনাজাতে অংশ নেন তিনি। এ সময় বিউগলে করুণ সুর বেজে ওঠে। অনুষ্ঠানে সশস্ত্র বাহিনীর একটি চৌকস দল অভিবাদন জানায়।
এদিকে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে ধানমণ্ডির বঙ্গবন্ধু ভবন প্রাঙ্গণ সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। ভোর থেকেই জাতির জনকের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক দল ও সংগঠনের নেতাকর্মী এবং সর্বস্তরের মানুষ বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনের রাস্তায় জমায়েত হন।

No comments: